Return   Facebook

সার্বজনীন বিচারালয়

রিজ্ওয়ান 2013

বিশ্বের বাহা’ইদের প্রতি

সুপ্রিয় বাহা’ই বন্ধুগণ

“ঈশ্বরের গ্রন্থটি সম্পূর্ণ উন্মুক্ত রহিয়াছে, এবং তাঁহার বাণী মানবজাতিকে তাঁহার প্রতি একত্রিত হতে আহ্বান করিতেছে। সর্বোচ্চের লেখনী একত্রিত ও মিলিত হওয়ার দিবসটির আগমন এইরূপ উৎফুল্লজনক শব্দাবলীতে বর্ণনা করিতেছে।” বাহা’উল্লাহ্ আরও বলেন: “তোমাদের কর্ণগুলি আনত কর, হে ঈশ্বরের বন্ধুগণ, তাঁহার কন্ঠনিঃসৃত ধ্বনির প্রতি যাহাকে পৃথিবীর জনগণ নির্যাতন করিয়াছে, এবং উহার প্রতি দৃঢ়সংলগ্ন থাক যাহা কিছু তাঁহার ধর্মকে উচ্চ-প্রশংসিত করিবে।” তিনি তাঁর অনুসারীগণকে আরও উপদেশ দিয়াছেন: “পরম বন্ধুভাবাপন্নতা সহকারে এবং একটি পরিপূর্ণ সাহচর্যের চেতনায় তোমরা একে অপরের সাথে পরামর্শ করো, এবং তোমাদের জীবনের মূল্যবান দিবসসমূহ পৃথিবীর উন্নতিসাধনে এবং তাঁহার ধর্মের বিস্তারে উৎসর্গিত করো যিনি প্রাচীন এবং সকলের সার্বভৌম পরম প্রভু।”

প্রিয় সহকর্মীগণ: এই জাগ্রতকারী ঘোষণা আমাদের মনে অনাহূত হয়ে দেখা দেয় যখন আমরা বিশ্বজুড়ে বাহা’উল্লাহ্ র আহ্বানের প্রতি সাড়া দিতে আপনাদের উৎসর্গিত প্রচেষ্টাগুলি অবলোকন করি। সকল প্রান্তে তাঁর আহ্বানগুলির প্রতি অত্যন্ত সন্তোষজনক সাড়াদান প্রত্যক্ষ করা যেতে পারে তাদের জন্য, যারা ঐশী পরিকল্পনার উন্মোচনের উপর একটু থেমে প্রতিফলন করে, তাদের নিকট ইহা উপেক্ষা করা অসম্ভব হয় যে ঈশ্বরের বাণীতে বিদ্যমান শক্তি কিভাবে দেশের পর দেশে, ক্লাস্টারের পর ক্লাস্টারে, নারী ও পুরুষ, শিশু ও যুবদের হৃদয়গুলিকে ক্রমবর্ধমানভাবে শক্তিশালী ও প্রভাবিত করছে।

একটি বিশ্বব্যাপী সমাজ ইহার অব্যবহিত বাস্তবতা পড়ার সামর্থ্য পরিশুদ্ধ করছে, ইহার সম্ভাবনাগুলি বিশ্লেষণ করছে, এবং পাঁচসালা পরিকল্পনার পদ্ধতিগুলি এবং কর্মসাধনযন্ত্রগুলি বিচক্ষণতার সাথে প্রয়োগ করছে। যেরূপ প্রত্যাশিত হয়েছিল, সেই ক্লাস্টারগুলিতে সর্বাধিক দ্রুততার সাথে অভিজ্ঞতা পুঞ্জীভূত হচ্ছে যেখানে, শেখার সীমারেখাগুলি সচেতনভাবে উন্নত করা হচ্ছে। এইরূপ স্থানগুলিতে, একটি চির-বর্ধনশীল সংখ্যক ব্যক্তিবর্গকে সেবার জন্য তাদের সামর্থ্যগুলি শক্তিশালী করতে সক্ষম করার উপায়গুলি ভালোভাবে উপলব্ধি লাভ করেছে। পরিকল্পনা এগিয়ে নিতে সমাজের প্রচেষ্টাগুলির প্রধান অবলম্বনরূপে একটি স্পন্দমান প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট কাজ করছে এবং, যত দ্রুত সম্ভব, ইন্সটিটিউট কোর্সগুলিতে অংশগ্রহণের মাধ্যমে গড়ে ওঠা দক্ষতা ও সামর্থ্যগুলি কর্মক্ষেত্রে নিয়োজিত করা হচ্ছে। কেহ কেহ, তাদের প্রাত্যহিক সামাজিক মিথস্ক্রিয়াগুলির মাধ্যমে, সেই আত্মাগুলির সম্মুখীন হয়ে থাকেন যারা একটি বৈচিত্রময় বিন্যাসে সম্পাদিত আধ্যাত্মিক বিষয়গুলির তথ্যানুসন্ধান করতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন; কেহ কেহ একটি গ্রাম বা মহল্লায় হতে পারে সেই এলাকায় স্থানান্তরিত হওয়ার দ্বারা গ্রহণশীলতার প্রতি সাড়াদান করার অবস্থানে রয়েছেন। দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিতে বর্ধিত সংখ্যায় উত্থিত হচ্ছেন, তাদের বিন্যাসগুলি স্ফীত হচ্ছে যারা টিউটর, এনিমেটর, এবং শিশুদের ক্লাসগুলিতে সেবা দিচ্ছেন; যারা পরিচালনা ও সমন্বয় করেন বা অন্যথায় যারা কাজটির সমর্থনে শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন। শেখার জন্য বন্ধুদের গৃহীত দায়িত্ব তাদের নিজেদের প্রচেষ্টাগুলিতে দৃঢ়চিত্ততা এবং অন্যদেরকে তাদেরগুলিতে সহগামী হতে স্বেচ্ছাপ্র্রণোদিত হওয়ার মাধ্যমে একটি অভিব্যক্তি খুঁজে পায়। এ ছাড়াও, তারা ক্লাস্টারটিতে গড়ে ওঠা কর্মের উৎকৃষ্ট উদাহরণের উপর দুইটি পরস্পর সহায়ক দৃশ্যপট দৃষ্টির মধ্যে রাখতে সক্ষম হয়ে থাকেন: এক, কার্যক্রমের ত্রৈ-মাসিক চক্রগুলি - এবং অপরটি, শিশুদের জন্য, কিশোরদের জন্য, এবং যুব ও বয়ষ্কদের শিক্ষার একটি প্রক্রিয়ার স্পষ্ট উন্নতির মাত্রাগুলি। এই তিনটি পর্যায়কে যা সংযুক্ত করে সেই সম্পর্কটি স্পষ্টভাবে উপলব্ধি করার সময়, বন্ধুগণ সচেতন থাকেন যেন এগুলির প্রত্যেকটির নিজস্ব গতিশক্তি, ইহাদের নিজস্ব প্রয়োজনীয়তাগুলি, এবং ইহাদের নিজস্ব সহজাত গুণ থাকে। সর্বোপরি, তারা শক্তিশালী আধ্যাত্মিক বাহিনীগুলির ক্রিয়ায় সচেতন, যাদের ক্রিয়াগুলি সংখ্যাবাচক তথ্যে ততটা-ই দেখা যেতে পারে যতটা হিসাবের বিন্যাসে সমাজের অগ্রগতিতে প্রতিফলিত হয় যা ইহার সাফল্যের বর্ণনা দেয়। যা বিশেষভাবে প্রতিশ্রুতিপূর্ণ তা হচ্ছে সুদুরতম অগ্রগতি অর্জনকারী ক্লাস্টারসমূহে স্বাতন্ত্রসূচক এবং লক্ষণীয় বৈশিষ্ট্যগুলির অধিকতর সংখ্যা সেই সমাজগুলিতেও দৃশ্যমান যারা তাদের অগ্রগতির অতি প্রারম্ভিক পর্যায়ে রয়েছে।

বন্ধুদের অভিজ্ঞতা গভীরতর হওয়ার সাথে সাথে, একটি ক্লাস্টারের মধ্যে জীবনের একটি সমৃদ্ধ ও জটিল উৎকৃষ্ট উদাহরণ প্রতিপালন করতে, শত শত এমনকি হাজার হাজার ব্যক্তিবর্গকে অন্তর্ভূক্ত করতে তাদের সামর্থ্য বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশ্বাসীগণ তাদের প্রচেষ্টাগুলি থেকে যে অগণিত অন্তর্দৃষ্টি অর্জন করছেন তা প্রত্যক্ষ করতে পেরে আমরা কত যে আনন্দিত। দৃষ্টান্তস্বরূপ, তারা উপলব্ধি করেন যে ক্লাস্টার পর্যায়ে পরিকল্পনার ক্রমে ক্রমে উন্মোচন একটি গতিময় প্রক্রিয়া, যা অপরিহার্যভাবে জটিল এবং যা ইহাকে তাৎক্ষণিক সরলীকরণ করতে দেয় না। মানবসম্পদগুলির বৃদ্ধি করা এবং যারা উত্থিত হন তাদের ক্রিয়াগুলি সমন্বিত ও ভালোভাবে পরিচালিত করা উভয়ে তারা যখন তাদের সামর্থ্য বৃদ্ধি করেন তখন কিভাবে ইহা এগিয়ে যায় তা তারা দেখতে পান। বন্ধুগণ উপলব্ধি করেন যে সামর্থ্যগুলি বৃদ্ধির সাথে সাথে আরও বি¯তৃত সংখ্যক উদ্যোগগুলি অঙ্গীভূত করা সম্ভব হয়। সমানভাবে, তারা বুঝতে পেরেছেন যে যখন একটি নতুন কার্যক্রম শুরু করা হয় তখন কিছু সময়ের জন্য বিশেষ মনোযোগের প্রয়োজন হয়, কিন্তু তা কোনভাবেই তাদের সমাজ গড়ার প্রচেষ্টার দিকগুলির গুরুত্বকে হ্্রাস করে না। কারণ তারা উপলব্ধি করেন যে যদি শেখাই তাদের কর্মসাধন প্রণালী হতে হয়, তাহলে তাদেরকে অবশ্যই পরিকল্পনার একটি কর্মসাধন যন্ত্র কর্তৃক প্রদত্ত সম্ভাবনার প্রতি সচেতন থাকতে হবে যা নির্দিষ্ট কোন এক সময়ে, যেখানে প্রয়োজন হবে, ইহার উন্নয়ণে বৃহত্তর শক্তি বিনিয়োগ করা বিশেষভাবে উপযুক্ত প্রমাণিত হবে; তা সত্ত্বেও, ইহা সমর্থন করে না যে প্রত্যেক ব্যক্তিকে অবশ্যই পরিকল্পনার একই দিক নিয়ে নিয়োজিত থাকতে হবে। বন্ধুগণ আরও শিখেছেন যে বৃদ্ধির একটি কার্যক্রমের প্রতিটি কালচক্রের প্রসারণ পর্যায়ের প্রধান মনোযোগটি একই দিকে হওয়া অপরিহার্য নয় কোন একটি কালচক্রে এমন অবস্থার প্রয়োজন হতে পারে, উদাহরণস্বরূপ, যেখানে ব্যক্তি বা সম্মিলিতভাবে গৃহীত, নিবিড় শিক্ষাদান প্রচেষ্টাগুলির মাধ্যমে ধর্ম গ্রহণের জন্য আত্মাগুলিকে আমন্ত্রণ করা, প্রাথমিকভাবে নির্ধারিত মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দু হতে পারে, অপর একটি কালচক্রে, মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দু একটি নির্দিষ্ট মূলকর্মকাণ্ডের সংখ্যাবৃদ্ধি হতে পারে।

এ ছাড়াও, বন্ধুগণ সচেতন রয়েছেন যে ধর্ম বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন গতিতে এগিয়ে যায় এবং কারণ এই যে, - ইহা, সর্বোপরি, একটি জৈবিক সত্তা - এবং অগ্রগতির প্রতিটি দৃষ্টান্ত যা তারা দেখতে পান তা থেকে তারা আনন্দ ও উৎসাহ লাভ করেন। বাস্তবিক-ই, তারা সুফলটি স্বীকার করেন যা সামগ্রিক অগ্রগতির প্রতি প্রত্যেক ব্যক্তির অংশগ্রহণ থেকে আসে, এবং এভাবে প্রত্যেকের দ্বারা প্রদত্ত সেবায়, একজনের পরিস্থিতিগুলির দ্বারা সৃষ্ট সম্ভাবনাগুলির সাথে সঙ্গতিপূর্ণতা, সকলের দ্বারা স্বাগত হয়। প্রতিফলনের জন্য সমাবেশগুলিকে উত্তোরোত্তরভাবে উপলক্ষগুলি হিসেবে দেখা হয় যেখানে সমাজের কর্মকাণ্ডগুলি, উহাদের সামগ্রিকতায়, ঐকান্তিক এবং প্রেরণদায়ক পরামর্শের বিষয় হয়ে থাকে। সার্বিকভাবে যা সুসম্পন্ন হয়েছে তা অংশগ্রহণকারীগণ শিখতে পারেন, সেই আলোকে তারা নিজেদের শ্রমগুলি বুঝতে পারেন, প্রতিষ্ঠানগুলির উপদেশসমূহ আত্মীভূত করা এবং তাদের সহ-বিশ্বাসীদের অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর করার দ্বারা বৃদ্ধির প্রক্রিয়া সম্বন্ধে তাদের জ্ঞান বাড়াতে পারেন। এইরূপ অভিজ্ঞতা আরও অনেক ক্ষেত্রে বিনিময় করা হয় যা সুনির্দিষ্টি প্রচেষ্টাগুলিতে প্রগাঢ়ভাবে নিয়োজিত বন্ধুগণের মধ্যে পরামর্শের জন্য বেরিয়ে আসে, হতে পারে তারা একটি সাধারণ কর্মতালিকার পশ্চাদ্ধাবন করছেন অথবা ক্লাস্টারের একটি নির্দিষ্ট অংশে সেবাদান করছেন। এই সকল অন্তর্দৃষ্টিগুলি একটি প্রশস্ততর উপলব্ধিতে রয়েছে যে ভালোবাসা দ্বারা অনুপ্রাণীত একটি পরিবেশে অগ্রগতি সর্বাধিক সহজভাবে অর্জিত হয় Ñ যেখানে দোষ-ত্রুটিগুলি ধৈর্যের সাথে উপেক্ষা করা হয়, বাধাগুলি সহিষ্ণুতার সাথে অতিক্রম করা হয়, এবং পরীক্ষিত কর্মসাধন উপায়গুলি প্রবল উৎসাহের সাথে গ্রহণ করা হয়। এবং ইহা এইরূপ যে, প্রতি স্তরে ক্রিয়াশীল ধর্মের প্রতিষ্ঠানগুলি এবং অঙ্গ-সংগঠনগুলির বিজ্ঞ দিক-নির্দেশনার মাধ্যমে, বন্ধুগণের প্রচেষ্টাগুলি, আলাদা আলাদাভাবে যতই সংযত হোক না কেন, একটি সম্মিলিত প্রচেষ্টায় মিলিত হওয়া নিশ্চিত করতে হবে যেন আশীষপূতঃ সৌন্দর্যের আহ্বানের প্রতি গ্রহণোন্মুখতা দ্রুত চিহ্নিত করা যায় এবং ফলপ্রসূভাবে প্রতিপালন করা যায়। এই অবস্থায় একটি ক্লাস্টার সুস্পষ্টভাবে সেই-টি যেখানে ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠানগুলি, এবং সমাজ -- পরিকল্পনার তিন মুখ্যচরিত্র -- সুস্থভাবে বিকশিত হচ্ছে।

সমৃদ্ধশীল কর্মকাণ্ডের এই প্রাকৃতিক ভূ-দৃশ্য থেকে, একটি সম্ভাবনা বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। তিন বছর পূর্বে আপনাদের প্রতি দেয়া বার্তায়, আমরা আশা প্রকাশ করেছিলাম যে, ক্লাস্টারগুলিতে যেখানে বৃদ্ধির নিবিড় কার্যক্রম চলছে, সেখানে বন্ধুগণ মহল্লা ও গ্রামগুলিতে প্রগাঢ় কর্মকাণ্ডের কেন্দ্র গড়ে তোলার দ্বারা উপায়গুলি সম্বন্ধে আরও শিখতে প্রচেষ্টা চালাবেন। আমাদের আশাগুলি অতিক্রম করেছে, কারণ এমনকি ক্লাস্টারগুলিতে যেখানে বৃদ্ধির কর্মকাণ্ডগুলি এখনো তীব্রতা অর্জন করে নাই, সেখানেও ক্ষুদ্র এলাকাগুলির অধিবাসীদের মধ্য থেকে কয়েকজনের কর্তৃক হাতে নেয়া মূল কর্মকাণ্ডগুলির প্রচেষ্টাগুলি বার বার তাদের ফলপ্রসূতা প্রদর্শন করেছে। মূলতঃ, এই কর্মসাধন উপায় জনগণের একটি অংশের উপর বাহা’উল্লাহর শিক্ষাগুলির প্রতি সাড়াদানের উপর কেন্দ্রীভূত, যারা তাঁর প্রত্যাদেশ লালিত আধ্যাত্মিক রূপান্তরের জন্য প্রস্তুত। প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট কর্তৃক সংবর্ধিত শিক্ষামূলক প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে, তারা সমাজের বাহিনীগুলি কর্তৃক প্রোথিত অসাড় অবস্থা ও উদাসীনতা প্রত্যাখ্যান করতে প্রণোদিত এবং তদস্থলে, সেই কর্মকাণ্ডের উৎকৃষ্ট উদাহরণের পশ্চাদ্ধাবন করেন যা জীবন পরিবর্তনকারী রূপে প্রমাণিত হয়েছে। যেখানে এই কর্মপন্থা একটি মহল্লা বা গ্রামে কয়েক বছর যাবত অগ্রসর হয়েছে এবং বন্ধুগণ তাদের মনোনিবেশ ধরে রেখেছেন, সেখানে লক্ষ্যণীয় ফলাফল ধীরে ধীরে কিন্তু অভ্রান্তভাবে সুস্পষ্ট হচ্ছে। যুবগণ তাদের চারপাশের তাদের থেকে কমবয়েসী যারা রয়েছে তাদের উন্নয়ণের দায়িত্ব নেয়ার জন্য ক্ষমতা অর্জন করেছেন। সমগ্র সমাজের বিষয়াবলী সম্বন্ধে অর্থপূর্ণ আলোচনাগুলিতে যুবদের অবদানকে তাদের থেকে বয়ষ্ক প্রজন্ম স্বাগত জানিয়ে থাকেন। যুব ও বৃদ্ধ নির্বিশেষে সকলের জন্য, সমাজটির শিক্ষামূলক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে পরিমার্জিত শৃঙ্খলা পরামর্শের জন্য সামর্থ্য গড়ে তোলে, এবং উদ্দেশ্যপূর্ণ কথোপকথনের জন্য নতুন স্থানগুলির আবির্ভাব ঘটে। তৎসত্ত্বেও, পরিবর্তন শুধু বাহা’ইগণ এবং তাদের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয় পরিকল্পনা কর্তৃক যাদেরকে মূল কর্মকাণ্ডগুলিতে সম্পৃক্ত হতে আহ্বান করা হয়েছে, তারা একটি সময়ের পরে যুক্তিসঙ্গতভাবে চিন্তার নতুন পথগুলি অবলম্বন করবেন বলে প্রত্যাশা করা যায়। স্থানটির চেতনা স্বয়ং প্রভাবিত হবে। একটি ব্যাপক বি¯তৃত জনগণের মধ্যে একটি আধ্যাত্মিক মনোভাব গড়ে ওঠে। নারী ও পুরুষের সমতার অভিব্যক্তিগুলি আরও অধিক উচ্চারিত হয়। শিশুদের শিক্ষা, ছেলে ও মেয়ে উভয়ের প্রতি, বৃহত্তর মনোযোগ দাবী করে। পরিবারগুলির মধ্যে সম্পর্কগুলির বৈশিষ্ট্য -- যা শত শত বছরের পুরোনো পূর্ব-ধারণা দ্বারা প্রভাবিত -- প্রত্যক্ষভাবে পরিবর্তিত হয়। কারো ঘনিষ্ঠ সমাজ এবং বাস্তব পরিবেশের প্রতি একটি কর্তব্যবোধ ব্যাপকতা লাভ করে। এমনকি পূর্ব-সংস্কারের চাবুক, যা ইহার অশুভ ছায়া প্রতিটি সমাজের উপর ফেলে, তা একতার বাধ্যকারী শক্তির প্রতি অবনত হতে শুরু করে। সংক্ষেপে, সমাজ গড়ার কাজ যার মধ্যে বন্ধুগণ নিয়োজিত রয়েছেন তা সংস্কৃতির দিকগুলিকে প্রভাবিত করে।

বিগত বছরটিতে যখন প্রসারণ ও দৃঢ়িকরণ নিয়মিতভাবে এগিয়ে গেছে, অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রের কাজগুলিও অগ্রবর্তী হয়েছে, অধিকাংশ সময়ে প্রায় সমান্তরালভাবে। একটি প্রধান উদাহরণস্বরূপ, কিছু সংখ্যক গ্রামে ও মহল্লায় সংস্কৃতির স্তরে যে অগ্রগতিগুলি পরিলক্ষিত হয়েছে তা সামাজিক কর্মকাণ্ডে বাহা’ই সম্পৃক্ততা থেকে যতটুকু জানা গেছে তা কোন ক্ষুদ্র অংশ নয়। সম্প্রতি আমাদের সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়ণের কার্যালয় একটি প্রামান্য দলিল প্রস্তুত করেছে যা বিশ্ব বাহা’ই কেন্দ্রে কার্যালয়টি প্রতিষ্ঠার পর থেকে এই ক্ষেত্রে ইহার ত্রিশ বছরের অভিজ্ঞতাকে শোধন করে। যে পর্যবেক্ষণগুলি ইহা করেছে তন্মধ্যে রয়েছে সামাজিক কর্মকাণ্ডে নিয়োজিত হওয়ার প্রচেষ্টাগুলি যা প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট দ্বারা অত্যাবশকীয় চালিকাশক্তি লাভ করেছে। এটা কেবল ইহার মানবসম্পদসমূহের বৃদ্ধি ধরে রাখার মাধ্যমে হয় নাই। আধ্যাত্মিক অন্তর্দৃষ্টিগুলি, গুণাবলী, এবং সামর্থ্যগুলি যেগুলি ইন্সটিটিউট প্রক্রিয়া দ্বারা বিকশিত করা হয়েছে সেগুলি সমাজে অংশগ্রহণের জন্য এতটা-ই গুরুত্বপূর্ণ যতটা সেগুলি বৃদ্ধির প্রক্রিয়ার প্রতি অবদান রাখে। এ ছাড়াও, বর্ণনা করা হয়েছে কিভাবে বাহা’ই সমাজের সহজে দৃষ্ট প্রচেষ্টার ক্ষেত্রগুলি একটি সাধারণ, বিবর্তনশীল, পারস্পরিকভাবে সুদৃঢ়করণের উপাদান নিয়ে গঠিত ধারণাকৃত কর্মকাঠামো দ্বারা পরিচালিত হয়। আমাদের বর্ণিত দলিলটি পরবর্তীকালে জাতীয় আধ্যাত্মিক পরিষদগুলির সাথে আলোচিত হয়েছে, এবং আমরা তাদেরকে, উপদেষ্টাগণের সাথে পরামর্শক্রমে, বিবেচনা করতে আমন্ত্রণ জানিয়েছি যে, ইহা যে সকল ধারণা অনুসন্ধান করেছে তা কিভাবে তাদের পৃষ্ঠপোষকতার আওতায় পশ্চাদ্ধাবনকারী সামাজিক কর্মের প্রচেষ্টাগুলির শক্তি বৃদ্ধি করতে সাহায্য করতে পারে এবং বাহা’ই প্রচেষ্টার এই গুরুত্বপূর্ণ পরিসরে সচেতনতা জাগ্রত করতে পারে। এই ক্ষেত্রে ব্যাপক প্রসারিত কর্মকাণ্ডের জন্য একটি গণ আহ্বান হিসাবে ইহার ব্যাখ্যা করা যাবে না - সামাজিক কর্মের আবির্ভাব প্রাকৃতিকভাবে হয়ে থাকে - কিন্তু ইহা সময়োপযোগী যে বন্ধুগণ সমাজের রূপান্তরের জন্য তাদের প্রচেষ্টাগুলির নিহিতার্থের উপর আরও গভীরভাবে প্রতিফলন করেন। শেখার তরঙ্গোচ্ছাস যা এই ক্ষেত্রে ঘটছে তা সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়ণের কার্যালয়ের উপর বর্ধিত দাবী রাখছে, এবং এটা নিশ্চিত করার জন্য পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে যেন ইহার কর্ম সম্পাদন যথোপযুক্তভাবে বিকশিত হয়।

বিগত বারো মাসে একটি বিশেষ লক্ষণীয় দিক ছিল তা হচ্ছে যেভাবে বাহা’ই সমাজকে ঘন ঘন শনাক্ত করা হচ্ছিল, একটি ব্যাপক বি¯তৃত প্রসঙ্গগুলিতে, সমমনা লোকদের সাথে সহযোগীতায় সমাজের কল্যাণ বয়ে আনার প্রচেষ্টাগুলির দ্বারা। আন্তর্জাতিক ক্ষেত্র থেকে গ্রামীন জীবনের তৃণমূল পর্যন্ত, সকল প্রকার বিন্যাসের চিন্তাশীল নেতৃবৃন্দ তাদের সচেতনতা প্রকাশ করেছেন যে বাহা’ইগণ তাদের হৃদয়ে কেবল মানবজাতির কল্যাণ-ই রাখেন না, বরং যা সম্পাদন করতে হবে এবং তাদের উচ্চাকাঙ্খাগুলি বাস্তবায়নের জন্য কার্যকর উপায়গুলির একটি জোরালো ধারণার অধিকারী। এই সকল মূল্যায়ন এবং সমর্থনের অভিব্যক্তিগুলি ইতিপূর্বে অপ্রত্যাশিত কিছু স্থান থেকেও এসেছে। উদাহরণস্বরূপ, যেমনটি ধর্মের সূতিকাগারে, তাদের পথে অত্যাচারী শাসক কর্তৃক ভয়ানক প্রতিবন্ধকতাগুলি স্থাপন করা সত্ত্বেও, বাহা’ইগণতাদের বার্তায় তাদের জাতির অবস্থার জন্য গভীর নিহিতার্থগুলি থাকায় উত্তোরোত্তর ক্রমবর্ধমাণভাবে স্বীকৃত হয়েছেন এবং তাদের দেশের অগ্রগতিতে অবদান রাখতে অনমনীয় দৃঢ়সংকল্পের জন্য সম্মান পেয়েছেন।

ইরানে বিশ্বাসীগণ কর্তৃক সহ্য করা দুঃখকষ্ট, বিশেষভাবে দশকগুলিতে যখন থেকে ধর্মীয় কারণে শাস্তি প্রদানের অতি সাম্প্রতিক প্রবাহের সূচনা থেকে, অন্যান্য দেশে তাদের ভ্রাতা ও ভগিণীগণ তাদের প্রতিরক্ষায় দ্রুতবেগে এগিয়ে এসেছেন। অমূল্য সম্পদের মধ্য থেকে সেই সহিষ্ণুতার একটি ফলাফল স্বরূপ, বিশ্বব্যাপী বাহা’ই সমাজ যা অর্জন করেছে, আমরা এই সম্পর্কিত একটির উল্লেখ করছি: জাতীয় পর্যায়ে বিশেষায়িত অঙ্গসংগঠনগুলির একটি হৃদয়গ্রাহী নেটওয়ার্ক যা সরকারসমূহ ও সাধারণ সমাজের প্রতিষ্ঠানগুলির সাথে সম্পর্কগুলি পদ্ধতিগতভাবে গড়ে তোলার সামর্থ্যরে প্রমাণ দিয়েছে। সমান্তরালভাবে, আনুক্রমিক পরিকল্পনার প্রক্রিয়াগুলি প্রতিটি ক্ষেত্রে চলমান প্রচলিত ধর্মোপদেশগুলি ÑÑ ব্যক্তিগত কথোপকথন থেকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সর্বসাধারণের আলোচনা মঞ্চে -- যেখানেই হোক তাহাতে অংশগ্রহণে সমাজের সামর্থ্য পরিশুদ্ধ করেছে। তৃণমূল পর্যায়ে, এই প্রকার প্রচেষ্টায় সম্পৃক্ততা স্বাভাবিকভাবে গড়ে ওঠে, একই জৈবিক কর্মসাধন উপায় যা সামাজিক কর্মে বন্ধুগণের নিয়োজিত হওয়া নিয়মিত বৃদ্ধিকে বৈশিষ্ট্যমণ্ডিত করে, এবং ইহাকে উদ্দীপিত করতে কোন বিশেষ চেষ্টার প্রয়োজন নাই। জাতীয় পর্যায়ে, যদিও, ইহা প্রায়ই মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হচ্ছে কারণ এই একই নিবেদিত অঙ্গসংগঠনগুলি বেশ কিছূ জাতীয় সমাজে ইতিমধ্যে কর্মরত রয়েছে, এবং ইহা কর্মকাণ্ডের সুপরিচিত ও ফলপ্রসূ উৎকৃষ্ট উদাহরণগুলি প্রতিফলন, পরামর্শ এবং অধ্যয়ন অনুযায়ী এগিয়ে যাচ্ছে। এইরূপ প্রচেষ্টাগুলি বৃদ্ধি করতে, জ্ঞানের এই ক্ষেত্রে শেখা সহজতর করতে, এবং এটা নিশ্চিত করতে বাহা’ই সমাজের অন্যান্য প্রচেষ্টাগুলির সাথে সঙ্গতিপূর্ণ পদক্ষেপগুলি নেয়া হচ্ছে, সম্প্রতি আমরা বাহা’ই বিশ্ব কেন্দ্রে সাধারণের জন্য ধর্মোপদেশের কার্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেছি। এই ক্ষেত্রে পর্যায়ক্রমে কর্মকাণ্ডগুলির সংবর্ধন ও সমন্বয়সাধন এবং অভিজ্ঞতা পদ্ধতিগতকরণের মাধ্যমে জাতীয় আধ্যাত্মিক পরিষদগুলিকে সাহায্য করার জন্য আমরা তাদেরকে আহবান জানাচ্ছি।

অন্যান্য ক্ষেত্রে সংঘটনশীল অগ্রগতিগুলিও উৎসাহ জনক। সান্টিয়াগো, চিলিতে, যেখানে দক্ষিণ আমেরিকার মাতৃ উপাসনালয় গড়ে তোলা হচ্ছে, সেখানে নির্মাণ কাজ দ্রুততার সাথে চলছে। ইহার ভিত্তি, ভূ-গর্ভস্থ কক্ষসমূহ, এবং সরবরাহ সুরঙ্গের ঢালাইয়ের কাজ সম্পন্ন হয়েছে, একইভাবে স্তম্ভ¢গুলিও যা পরিকাঠামোর ভার বহন করবে তার কাজও সম্পন্ন হয়েছে। এই প্রকল্পটির সাথে সংযুক্ত প্রত্যাশা বাড়ছে, এবং সাতটি দেশে যেখানে জাতীয় বা স্থানীয় মাশরিক্বুল - আযকার গড়তে হবে সেখানে অনুরূপ প্রত্যাশা জাগ্রত হচ্ছে । প্রত্যেকটিতে, প্রস্তুতিগুলি আরম্ভ হয়েছে, এবং টেম্পল্স অর্থভাণ্ডারে বন্ধুগণ যে দানসমূহ করছেন তার ব্যবহার শুরু হয়েছে; যদিও, বাস্তব বিবেচনাগুলি, যেমন স্থান, নকশা, এবং সম্পদগুলি, বন্ধুগণ কর্তৃক গৃহিত কাজের কেবল একটি দিককে সুস্পষ্ট করে। মৌলিকভাবে, ইহা তাদের একটি আধ্যাত্মিক প্রচেষ্টা, যেখানে সমগ্র সমাজ অংশগ্রহণ করে। মাশরিকুল-আযকার কে প্রিয় মাষ্টার (আব্দুল-বাহা) “ঐশ্বরিক নিশ্চয়তাসমূহের চুম্বক”, “পরম প্রভুর শক্তিশালী ভিত্তি”, এবং “ঈশ্বরের ধর্মের সুদৃঢ় স্তম্ভ” রূপে উল্লেখ করেছেন। যখনই ইহা প্রতিষ্ঠিত হবে, তখনই ইহা স্বাভাবিকভাবে সমাজ গঠন প্রক্রিয়ার একটি অবিচ্ছেদ্য উপাদানে পরিণত হবে যা ইহাকে ঘিরে রেখেছে। ঐ সকল স্থানে যেখানে একটি উপাসনালয় দৃশ্যমান হবে সেখানে ইতিমধ্যে সাধারণ বিশ্বাসীদের মধ্যে এই বাস্তবতার সচেতনতা গভীরতা লাভ করছে, যারা স্বীকার করেন যে তাদের সম্মিলিত জীবন উপাসনা ও সেবার ঐক্যের মাধ্যমে অবশ্যই অধিক থেকে অধিকতর প্রতিফলন করবে যার বাস্তব রূপ মাশরিক্বুল-আযকার প্রদান করে।

অতএব, প্রতিটি দিকে, বাহা’ই সমাজকে আমরা নিয়মিতভাবে সম্মুখে এগিয়ে যেতে দেখছি, উপলব্ধি নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে, অভিজ্ঞতা থেকে অন্তর্দৃষ্টিগুলি অর্জন করতে আগ্রহী, সম্পদগুলি যখন সম্ভব করে তখন নতুন কাজগুলি নিতে প্রস্তুত, নতুন অবশ্যপালনীয়গুলির প্রতি ইহার সাড়াদানে গতিশীল, কর্মকাণ্ডের বিভিন্ন ক্ষেত্রগুলির মধ্যে সংগতিশীলতা নিশ্চিত করার প্রয়োজনের প্রতি সচেতন যেগুলিতে তারা নিয়োজিত রয়েছেন, ইহার জীবনের ব্রত পরিপূর্ণ করার জন্য সম্পূর্ণভাবে নিবেদিত। প্রায় দুই মাস পূর্বে সমাবর্তনের জন্য বিশ্বব্যাপী ৯৫টি যুব সম্মেলনের ঘোষণার দ্বারা উৎপন্ন অসাধারণ ঐকান্তিকতায় ইহার প্রবল উৎসাহ ও ভক্তি স্পষ্টত প্রতীয়মান। আমরা কেবল যুবদের প্রতিক্রিয়া দ্বারা সন্তুষ্ট নই বরং তাদের সহ-বিশ্বাসীগণ কর্তৃক ব্যক্ত সমর্থনের অভিব্যক্তিগুলি দ্বারাও, যারা উপলব্ধি করেন, কেমন করে বাহা’উল্লাহ্র অল্পবয়েসী বিশ্বাসীগণ ধর্মের সমগ্র প্রতিষ্ঠানটির প্রতি একটি অত্যাবশ্যক উদ্দীপক রূপে কাজ করে।

আমরা ক্রমাগত লক্ষণগুলি দ্বারা আশায় পরিপূর্ণ, আমরা বাহা’উল্লাহ্ র বাণী ছড়িয়ে দেয়া, ইহার প্রভাবে পরিসর, এবং ইহাতে নিহিত আদর্শগুলির প্রতি বর্ধিষ্ণু সচেতনতা দেখতে পাই বার্ষিকীগুলির এই ঋতুতে, আমরা স্মরণ করতে আহ্বান করছি যে “মহত্তম পরিতৃপ্তির দিবস”, এই রিজওয়ান থেকে দেড় শতাব্দী দ্বারা বিযুক্ত, যখন আবহা সৌন্দর্য নাজিবিয়ী উদ্যানে তাঁর সঙ্গীদের নিকট তাঁর দৌত্যের প্রথম ঘোষণা করেছিলেন। সেই পবিত্রকৃত স্থান থেকে, ঈশ্বরের বাণী প্রতিটি শহরে এবং প্রতিটি তটে পৌঁছে গেছে, মানবজাতিকে ইহার পরম প্রভূর সাথে একটি সাক্ষাতের জন্য হাজির হতে আহ্বান করছে। এবং ঈশ্বরের সেই প্রারম্ভিক অনুচরবর্গ- উল্লসিত প্রেমিকগণ থেকে, অভীষ্ট লক্ষ্যের একটি বৈচিত্রময় সম্প্রদায় বিকশিত হয়েছে, যে উদ্যানটিতে তিনি বিভিন্ন রংয়ের ফুল প্রতিপালন করেছেন। প্রতিটি বিলীয়মান দিনের সাথে সাথে, বর্ধিত সংখ্যক নতুনভাবে জাগরিত আত্মাগুলি সানুনয় প্রার্থনায় তাঁর সমাধির দিকে মুখ ফেরায়, সেই স্থান যেখানে আমরা, সেই আশীষপূতঃ দিবসটির সম্মানে এবং মহান নামের সমাজটির উপর প্রদত্ত প্রতিটি বদান্যতার জন্য কৃতজ্ঞতায়, পবিত্র দ্বারপ্রান্তে প্রার্থনায় আমাদের মস্তকগুলি অবনত করি।

 

Windows / Mac